Logo
নোটিশ :
স্বাগতম একুশের আলো .....

মেহেন্দিগঞ্জে যৌতুক না পেয়ে শাশুড়ির পা ভাঙল জামাই

মেহেন্দিগঞ্জে যৌতুক না পেয়ে শাশুড়ির পা ভাঙল জামাই

অনলাইন ডেস্কঃ মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার হর্নি গ্রামে যৌতুকের টাকা না দেয়ায় শাশুড়ি ও শ্যালক কে পিটিয়ে পা ভেঙে দিয়েছে পাষণ্ড জামাই ও তার পরিবারের লোকজন। এ সময় হামলা চালিয়ে,নগদ ৫৫ হাজার টাকা, স্বর্ণালঙ্কার ও ঘর ভাঙচুর ও মালামাল লুটপাট চালায় তারা। এমনটাই অভিযোগ করেছেন ভুক্তভুগীরা । মঙ্গলবার রাত সাড়ে দশটায় মাঝি বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, ওই গ্রামের বাসিন্দা ও কাঠ মিস্ত্রি জাহাঙ্গীরের স্ত্রী শাহিনুর বেগম ও তার ছেলে ইয়াছিন মাঝি। বর্তমানে তারা শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আহতের স্বামী জাহাঙ্গীর জানান, ৬ বছর আগে তার মেয়ে শারমিনের সাথে একই উপজেলার খোরশেদ বেপারীর ছেলে উজ্জল বেপারী সাথে পারিবারিক প্রস্তাবের মাধ্যমে বিয়ে হয়। বিয়ের সময় মেয়ের সুখের জন্য, উজ্জ্বলকে নগদ ১ লক্ষ টাকা সহ প্রায় ২ লক্ষ টাকার মালামাল দেন শারমিনের বাবা। বছর যেতে না যেতেই যৌতুকের জন্য শারমিনের উপর অমানবিক নির্যাতন চালায় উজ্জ্বল ও তার পরিবার। তারই ধারাবাহিকতায় ঘটনার দিন রাতে শারমিনকে তার পিত্রালয় থেকে গাড়ি কেনার জন্য ৫০ হাজার টাকা আনতে বলে। এ সময় সে টাকা আনতে অপারগতা জানালে। ক্ষিপ্ত হয়ে উজ্জল ও তার বাবা খোরশেদ বেপারী মা নুরজাহান, ভাই জুয়েল ও ইমন সহ অজ্ঞাত আরো ১৫/২০ জনে শারমিনের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় তার ডাক চিৎকারে মা শাহিনুর ও ছোট ভাই ইয়াছিন ঘটনাস্থলে গেলে তাদের কে হত্যার উদ্দেশ্যে লাঠিসোটা দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে গুরুতর জখম করে তারা। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক মেহেন্দিগঞ্জ থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তার অবস্থার অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরন করে। তার বাম পায়ের হাড় ভেঙে গেছে বলে,ওই ইউনিটের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা জানান। এদিকে উজ্জ্বল ও তার পরিবার শারমিনকে তাদের ঘরে ঘরবন্দী করে রেখেছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি আরো জানান।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *