ঢাকা   ২৮শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ । ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ । সোমবার । সকাল ৮:৪৪

রাঙ্গাবালীতে বন্ধন ক্লাব’র উদ্যেগে ধর্ষণবিরোধী বিক্ষোভ মিছিল

মোঃ রিফাত মুন্সী, রাঙ্গাবালী ( পটুয়াখালী) প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় এক গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনাসহ সারাদেশে ধর্ষণবিরোধী কর্মসূচির ধারাবাহিকতায় পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নে বিচার ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করা হয়েছে।

চলতি বছরে ধর্ষনের পরিমান এতোটা বেরেছে যা ইতিহাসকে ও হার মানায় । ‘ধর্ষনের সর্বনিম্ন শাস্তি মৃতদন্ড’‘আমার সোনার বাংলায় ধর্ষকের ঠাঁই নাই’ধর্ষকের কালো হাত, ভেঙে দাও গুঁড়িয়ে দাও- এ স্লোগানে শুক্রবার বিকাল ৫ টায় ওই ইউনিয়নের ছাতিয়ানপাড়া স্লুইস এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনে জড়িতদের শাস্তির দাবিতে দেশের বিভিন্ন স্থানে আয়োজিত হয়েছে— গণজমায়েত, মানববন্ধন ।ধর্ষণবিরোধী এ মাবনবন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করে ‘ ছাতিয়ানপাড়া বন্ধন ক্লাব’ নামের স্বেচ্ছাসেবী একটি সংগঠন।এতে স্থানীয় নারী পুরুষ, ব্যবসায়ী, শিক্ষার্থী সাধারন লোকসহ ও সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশ নেন।এসময় অংশগ্রহণকারীদের হাতে ছিল ধর্ষণবিরোধী লেখা সম্বলিত প্ল্যাকার্ড।

বিক্ষোভ মিছিলটি ছাতিয়ানপাড়া স্লুইস এলাকার বিভিন্ন স্থান প্রদিক্ষন করেন । পবিত্রতার সাথে মহান আল্লাহর নাম স্মরন করে বক্তারা বলেন , কোন ধর্মে বা কোথায়ও বলা নাই যে ধর্ষক কোন গ্রুপের মধ্যপরে । ওদের কোন জাত নেই ধর্ম নেই দল ওরা শুধুই ধর্ষক এটাই ওদের পরিচয়। আমারা গ্রাম থেকেই শুরু করি সমাজবিরুধি কর্মকান্ড প্রত্যাহার ও সচেতনতা। আসুন আমরা সবাই সামাজিক সকল অন্যায় অপকর্মের বিরুদ্বে রুখে দাড়াই । পাশাপাশি পরকিয়াকে বন্ধ করি কেননা এই পরকিয়া থেকেই হতে পারে ধর্ষন ,আত্মহত্যা সহ নানা অসামাজিক কাজ ।

বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীরা নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে নারী নির্যাতনের দোষীদের ও সিলেট এম সি কলেজেরসহ সারা দেশে ঘটে যাওয়া ধর্ষকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।উপস্থিতিরা বলেন, ধর্ষকের কোনো দল নেই। এদের পরিচয় এরা ধর্ষক। তাই আমরা ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য দাবি জানাচ্ছি।

%d bloggers like this: