ঢাকা   ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ । ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ । সোমবার । রাত ১:৫৯

মাস্ক না পরায় ১৫ জনকে জরিমানা

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় পর্যায়ের সংক্রমণ ঠেকাতে বরিশাল নগরীর বিভিন্নস্থানে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এসময় মাস্ক না পরে বাইরে বের হওয়া ১৫ জন ব্যক্তিকে জরিমানা করা হয়। অর্থদন্ড করা হয় নগরীর ৫টি দোকান ও শপিংমল মালিককে। পাশাপাশি মাস্ক ব্যবহারে জনসাধারণকে সচেতন ও উদ্বুদ্ধ করতে বিভিন্ন দোকানে ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’ লেখা ব্যানার ও বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ করা হয়। মঙ্গলবার (৯ নভম্বের) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত জেলা প্রশাসনের তিনজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পৃথক তিনটি দলে বিভক্ত হয়ে এ অভিযানগুলো পরিচালনা করেন। অভিযানে নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জিয়াউর রহমান, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুমানা আফরোজ ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আতাউর রাব্বি। তাদেরকে সহায়তা করে মেট্রোপলিটন পুলিশের তিনটি দল। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জিয়াউর রহমান বলেন, মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত নগরীর সদর রোডের কাকলীর মোড়, বিবির পুকুর পাড়, টাউনহল, গির্জা মহল্লা, ফলপট্টি, চকবাজারসহ বিভিন্নস্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এসময় কর্মচারীরা মাস্ক ব্যবহার না করায় ৫টি দোকান ও শপিংমল মালিককে জরিমানা করা হয়। এসডিএল মোটরসকে (বাইক শো রুম) ১ হাজাার টাকা, মোহনা ডিপার্টমেন্টাল স্টোরকে ১ হাজার টাকা, সকাল সন্ধ্যা সুইটসকে ১ হাজার টাকা, আর্টিস্ট ফ্যাশনকে ৫০০ টাকা ও লেন্স কর্নারকে ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়। তাছাড়া মাস্ক না পরে বাইরে বের হওয়ায় ১৫ জন ব্যক্তিকে ৫ হাজার ৮০০ টাকা জরিমানা করা হয়। পাশাপাশি মাস্ক ব্যবহারে জনসাধারণকে সচেতন ও উদ্বুদ্ধ করতে বিভিন্ন দোকানে ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’ লেখা ব্যানার ও বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ করা হয়। জনস্বার্থে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

%d bloggers like this: