ঢাকা   ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ । ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ । মঙ্গলবার । রাত ১২:০৯

ভূয়া স্বাক্ষরে মনোনয়নপত্র দাখিল, পরে প্রত্যাহারের আবেদন

অনলাইন ডেস্কঃ চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন না পেয়ে মেম্বর পদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন করলেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান লিটন। গত ১৮ নভেম্বর মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও ইউপি নির্বাচনের রিটানিং অফিসারের নিকট এই আবেদন করেছেন।
আবেদনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রিটানিং অফিসার মো. জহিরুল ইসলাম। অপরদিকে আবেদনপত্র কার্যকর করা না হলে এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের কথা জানিয়েছেন সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ নূরুল আলম। আবেদন সূত্রে জানা যায়, উপজেলার উলানিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন সরদার মৃত্যুবরন করার পর ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ড সদস্য (মেম্বর) হাবিবুর রহমান লিটনকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মনোনীত করা হয়। গত প্রায় দুইবছরের অধিক সময় তিনি ওই ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান থেকে দায়িত্ব পালন করে আসছে। সম্প্রতি স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় উলানিয়া ইউনিয়নকে দুইভাগে বিভক্ত করে দক্ষিণ উলানিয়া এবং উত্তর উলানিয়া ইউনিয়নের রূপান্তর করে এবং সম্প্রতি নির্বাচন কমিশন এই দুই ইউনিয়নে ভোটগ্রহনের জন্য তফসিল ঘোষনা করে। আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন চেয়ে আবেদন করে ব্যর্থ হওয়ায় মনোকষ্ট পায় হাবিবুর রহমান লিটন। কিন্তু কে বা কাহারা তাকে ৫নম্বর ওয়ার্ড সদস্য পদের জন্য রিটানিং অফিসারের দপ্তরে মনোনয়নপত্র দাখিল করে। কিন্তু গত ১৮ নভেম্বর হাবিবুর রহমান লিটন নির্বাচনের রিটানিং অফিসার উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বরাবরে একটি আবেদনপত্র জমা দেন। নির্বাচনে প্রার্থীতা বাতিল/প্রত্যাহার চেয়ে আবেদনে লিটন উল্লেখ করেন- দক্ষিণ উলানিয়া ইউপি নির্বাচনে ৫নম্বর ওয়ার্ডে সদস্য পদ প্রার্থী হিসেবে কে বা কাহারা আমার মনোনয়নপত্র দাখিল করেছে, তা আমি অবগত নই। দাখিলকৃত মনোনয়নপত্রে স্বাক্ষর আমার নয়। আমার ব্যক্তিগত ও পারিবারিক সমস্যার কারণে নির্বাচনে অংশগ্রহন করা কোন ভাবেই সম্ভব নয়। বিধায় আমার নামে দাখিলকৃত মনোনয়নপত্রটি বাতিল/প্রত্যাহার করা একান্ত আবশ্যক।
হাবিবুর রহমান লিটনের নিকট এই বিষয়ে জানতে চাইলে প্রথমেই তিনি প্রতিবেদকের নিকট জানতে চান “আপনাকে কে দিয়েছে ওই আবেদনপত্র”? আমি কোন আবেদন করিনি। মনোনয়নপত্র দাখিল বা স্বাক্ষর করেছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি কোন মন্তব্য না করে ফোনের লাইন কেটে দেন। মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটানিং অফিসার মো. জহিরুল ইসলাম মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন পেয়েছেন জানিয়ে বলেন, আগামী ২৩ ও ২৪ নভেম্বর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।বরিশাল জেলা সিনিয়র নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ নূরুল আলম বলেন, আবেদনের বিষয়টি রিটানিং কর্মকর্তা দেখবেন। তারপরও তিনি যদি এই বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা না নেন, তাহলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

%d bloggers like this: