ঢাকা   ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ । ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ । সোমবার । রাত ১১:৩৬

বাকেরগঞ্জ পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মোঃ আবুল কালাম

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ আসন্ন বাকেরগঞ্জ পৌর নির্বাচনে গত ১১ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশনের হাত থেকে কাঙ্খিত পানির বোতল মার্কা বুঝে পেলেন বর্তমান কাউন্সিলর মোঃ আবুল কালাম আজাদ।

নির্বাচনী ওয়ার্ডে নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে লিফলেট বিতরণের মাধ্যমে প্রচার প্রচারণায় মুখরিত করে তুলছেন নির্বাচনী মাঠ।ভোটারদের দ্বারে দ্বারে দোয়া ও ভোট প্রার্থনার মধ্য দিয়ে আনন্দমুখর করে তুলেছেন ১নং ওয়ার্ডের জনপদ।

নির্বাচনকে সামনে রেখে ভোটারদের মধ্যেও দেখা দিয়েছে উৎসাহ-উদ্দীপনা।নারী ১ হাজার ৪শত, পুরুষ ১হাজার ৩শত সর্বমোট ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ২হাজার ৭শত জন মানুষ। বাকেরগঞ্জ পৌরসভা ১নং ওয়ার্ডের বারবার নির্বাচিত কাউন্সিলর আবুল কালাম আজাদ সকলের কাছেই প্রিয় একজন মানুষ ।

ইতিমধ্যে তিনি এলাকাবাসীর কাছে আস্থার প্রতিক হিসেবে পরিচিত লাভ করেছেন। আদর্শ ও ন্যায় নীতির মধ্যে থেকে এলাকার মানুষের পাশে থাকাই এ মানুষটির মূল লক্ষ্য।

কোন কিছুর লোভ লালসা আর হিংসা তাকে আক্রমণ করতে পারেনি। এসব কারণেই এলাকার অনেকেই তার প্রশংসা করেন । স্থানীয়রা জানান, ছোটবেলা থেকেই তিনি মানুষের দু:খ দুর্দশায় নিজেকে সর্বদা ব্যস্ত রাখতেন।

বিবেকের ব্যাকুলতায় যখন যেভাবে পারতেন অসহায়দের পাশে দাড়িয়ে বাড়িয়ে দিতেন সহয়তার কোমল দুটি হাত। মানুষের দু:খ-দুর্দশা লাঘবের অক্রিতিম বিবেক বোধ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা দেশত্ববোধের গভিরতার টানে তিনি নিজেকে জড়িয়েছেন আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে।

বাকেরগঞ্জ সরকারি কলেজের ছাত্র সংসদ থেকেই নিজেকে জরিয়েছেন ছাত্র রাজনীতিতে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক রাজনীতি মিশে আছে তার হৃদয়ে। পৌরসভার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই শাসন শোষনের বৈসম্যের অবসান ঘটিয়ে সন্ত্রাস, মাদক ও জঙ্গীমুক্ত পৌরসভা গড়ার লক্ষ্যে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।তারই ধারাবাহিকতায় দ্বিতীয় বারের মতো কাউন্সিলর নির্বাচিত হন তিনি।

দলীয় সকল কার্যক্রম এর পাশাপাশি পৌরসভার উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে অগ্রণী ভূমিকায় তাকে দেখা গেছে । পৌরবাসির সেবার পাশাপাশি পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড জুড়েই তৈরী হয়েছে তার রাজনৈতিক জনপ্রিয়তার শক্তবলায়।

দিনের শুরু থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ভক্ত অনুসারী এবং নেতা-কর্মীদের সুখ দুঃখের খবর নেন তিনি।অনেক বাধা-বিপত্তি এসেছে কিন্তু নিজে কখনো বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে বিচ্যূত হননি। এগিয়ে চলছেন সব প্রতিবন্ধকতাকে পেছনে ফেলে।

আর তার কর্মের ফলও তিনি পেয়েছেন প্রিয় সংগঠন থেকে। রাজনৈতিক অঙ্গনে কাজ করতে গিয়ে দলের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের যেমন অকুণ্ঠ সমর্থন ও সহযোগিতা পেয়েছেন তেমনি তিনি প্রিয় ১নং ওয়ার্ডবাসীর স্নেহ-ভালোবাসা পেয়ে ধন্য হচ্ছেন।

তাদের প্রেরণায়ই তিনি এগিয়ে চলছেন নিরন্তর।প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন এলাকাবাসীর সেবা করার। ইতিমধ্যে করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের দেয়া বিভিন্ন কর্মসূচি বিশেষ ওএমএস, ত্রান, কার্ডের মাধ্যমে চাউল, প্রধান মন্ত্রীর দেয়া উপহারসহ বিভিন্ন কার্যক্রম সুনামের সহিত জনসাধারণের মাঝে বিতরণ করেছেন।

এই করোনা পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়া অনেক পরিবারের মাঝে নিজ সামর্থ্য অনুযায়ী সহযোগিতাও করেছেন।১নং ওয়ার্ডের সর্বস্তরের জনগণ মনে করেন এলাকার উন্নয়নের জন্য মোঃ আবুল কালাম আজাদের বিকল্প আর কেউ নেই।

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে কাউন্সিলর হিসেবে অামরা তৃতীয় বার তাকে বিপুল ভোটের মাধ্যমে জয়যুক্ত করব।এ বিষয় কাউন্সিলর মোঃ আবুল কালাম আজাদ সাংবাদিকদের জানান, এখন আমরা সবাই সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করছি।

গভীর রাতেও মানুষ চলাচল করতে পারে নির্বিঘ্নে। বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বারবার নির্বাচিত স্বনামধন্য মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া নেতৃত্বে ও নির্দেশনায় পৌরসভার সহ ১নং ওয়ার্ড বাসীর যথাযথ নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করতে প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

ওয়ার্ডের প্রতিটি নাগরিক সেবা দ্রুততার সাথে দেয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি, তবে সুশৃঙ্খল ও সুন্দরভাবে সকলকে গ্রহণের জন্য সবার প্রতি আমার আহবান ও সবাই সবসময় সহযোগিতা করবেন যাতে আমি সারাজীবন আপনাদের পাশে থেকে উন্নয়ন মূলক প্রতিটি কাজ ১নং ওয়ার্ডের মানুষের জন্য কাজ করতে পারি।

ইতিমধ্যে আমি ১নং ওয়ার্ডে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের জন্য গভীর নলকূপ স্থাপন করেছি। আমার রাজনৈতিক অভিভাবক পৌর মেয়র এর সহযোগিতায় ওয়ার্ড এর প্রধান সড়ক পিচ ঢালাই, সিসি ঢালাই সহ প্রত্যেকটি বাড়ির সড়কগুলোকে পাকা রাস্তায় উন্নত করেছি।

এছাড়াও বেশকিছু কার্যক্রম চলমান রয়েছে যা অতি শীঘ্রই বাস্তবায়ন করা হবে।তাই উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে আগামী ২৮শে ডিসেম্বর পানির বোতল মার্কায় ভোট দিয়ে পূনরায় আপনাদের সেবা করার সুযোগ দিন।

%d bloggers like this: