ঢাকা   ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ । ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ । সোমবার । রাত ১:৪৩

বরিশালে  সারা বছর কেমন ছিল

বছর শুরুর তিন মাসের মধ্যেই কোভিড-১৯ (করোনাভাইরাস) ছড়িয়ে পরে বাংলাদেশে। মার্চের শুরুতে দেশে সংক্রমণ দেখা দিলে সারা দেশের মতো বরিশালেও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। লকডাউনের কারনে সাধারন মানুষ ঘরবন্দি জীবন যাপন শুরু করে। সর্বত্র আতঙ্ক ও রোগ ছড়িয়ে পড়ায় ভয় নিয়েই কেটে গেছে কয়েকটি মাস। ২০২০ সালে মানেই লকডাউন। লকডাউন উঠে গেলেও বরিশাল বাসীর মনে গেথে থাকবে এটি। তারপরেও বরিশালে ২০২০ সালটি ছিলো ঘটনাবহুল। এর মধ্যে বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলায় ধর্ষণ মামলায় তিন শিশুকে গ্রেপ্তার এবং উচ্চ আদালতের আদেশে মুক্তি, বরিশাল সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র আহসান হাবিব কামাল দুর্নীতি মামলায় সাত বছর কারাদ-, উজিরপুরে অ্যাম্বুলেন্স দুর্ঘটনায় একজন মেজরসহ একই পরিবারের পাঁচজনের মৃত্যু, বানারীপাড়ায় এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ পানিতে ফেলে গুমের চেষ্টা, ঢাকা বরিশাল নৌ রুটে এক নারী ও এক যুবককে হত্যা, বরগুনায় ঈদের দিন বিকেলে প্রকাশ্যে পিটিয়ে হৃদয় নামের এক কিশোরকে হত্যাসহ বেশ কয়েকটি ঘটনা আলোচনার জন্ম দেয়। বাকেরগঞ্জে গত ৪ অক্টোবর ছয় বছরের এক কন্যাশিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। এই অভিযোগে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে ৬ অক্টোবর বাকেরগঞ্জ থানায় মামলা করেন। মামলায় শিশুটির খেলার সঙ্গী চার শিশুকে আসামি করা হয়। মামলার পর ওই চার শিশুকে গ্রেপ্তার করে বাকেরগঞ্জ থানার পুলিশ। পরে তাদের আদালতে হাজির করা হলে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ওই চার শিশুকে যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশ দেন। ওই শিশুদের পুলিশ প্রিজন ভ্যানে করে সেখানে পাঠানো হয়। গ্রেপ্তার চার শিশুর বিষয়ে গ্রেপ্তার হওয়ার রাতে উচ্চ আদালতের বিচারপতি মজিবুর রহমান ও মহিউদ্দিন শামীমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে একটি আদেশ দেন। ওই আদেশে বলা হয়, যশোরের জেলা প্রশাসককে যশোর পুলেরহাট শিশু উন্নয়ন কেন্দ্র থেকে ওই চার শিশুকে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত মাইক্রোবাসে করে বৃহস্পতিবার রাতের মধ্যেই অভিভাবকদের কাছে পৌঁছে দিতে হবে। সেই সঙ্গে বরিশালের সংশ্লিষ্ট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে ১১ অক্টোবর উচ্চ আদালতে সশরীরে উপস্থিত হতে হবে। গত ৯ নভেম্বর দুর্নীতির মামলায় বরিশাল সিটি করপোরেশনের (বিসিসি) সাবেক মেয়র ও বিএনপির নেতা আহসান হাবিবসহ পাঁচজনকে সাত বছর করে কারাদ- দেন আদালত। বরিশালের বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মহসিন উল হক ওই রায় দেন। রায়ে সাবেক মেয়র কামাল ও জাকির হোসেন নামের এক ঠিকাদারকে কারাদ-ের পাশাপাশি এক কোটি টাকা করে অর্থদ- দেওয়া হয়। গত ৯ সেপ্টেম্বর ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের উজিরপুর উপজেলায় মৃত নবজাতকের লাশ নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে নবজাতকের বাবাসহ একই পরিবারের পাঁচ সদস্যের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। কাভার্ড ভ্যান, অ্যাম্বুলেন্স ও যাত্রীবাহী বাসের ত্রিমুখী সংঘর্ষে ওই পাঁচজনসহ অ্যাম্বুলেন্সের চালকও মারা যান। এছাড়াও ২০২০ সালের শেষের দিকে বেশ কয়েকটি আলিচিত হত্যা কান্ডের ঘটনা ঘটেছে। ঢাকা বরিশাল নৌ রুটের বিলাশ বহুল লঞ্চে এই হত্যা কান্ড সংগঠিত হয়েছে। অপরদিকে বরিশালের গৌরনদীতে বাস থেকে ড্রামে ভর্তি করা এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গত ১৭ নভেম্বর ঢাকা-বরিশাল রুটে যাত্রী বোঝাই লঞ্চ সুন্দরবন-১১ এর ছাদে খুন হন পোশাক কর্মী শামীম তালুকদার। শামীম নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা এলাকার কুতুবাইন এলাকায় আবির ফ্যাশনে চাকরি করতেন। তিনি ঝালকাঠীর নলছিটি উপজেলার কুশঙ্গল ইউনিয়নের জামুরা গ্রামের খালেক হাওলাদারের ছেলে। সেদিন ভোরে লঞ্চের ছাদে চিমনির কাছে নিয়ে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয় বলে ধারণা পুলিশের। সকাল ছয়টার দিকে লঞ্চের পরিচ্ছন্নতা কর্মী আবুল কালাম ছাদে ধোয়া মোছার কাজ করতে গেলে রক্তাক্ত যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়।
গত ১৪ সেপ্টেম্বর ঢাকা-বরিশাল নৌরুটের পারাবাত-১১ লঞ্চের ৩৯১ নম্বর কেবিনে খুন হন জান্নাতুল ফেরদৌস লাবণী নামে আরেক যাত্রী। বরিশাল নদী বন্দরে নোঙর করা লঞ্চ থেকে মরদেহ উদ্ধারের পর সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তদন্তের পর ১৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর মিরপুর থেকে গ্রেপ্তার করা হয় মনিরুজ্জামান চৌধুরী নামে একজনকে। জান্নাতুল ফেরদৌস ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার ওলিউর রহমানের স্ত্রী। ওলিউর ভাঙ্গা উপজেলায় ইলেকট্রিক মিস্ত্রির কাজ করেন। জান্নাতুলের বাবার বাড়ি উপজেলার আদমপুর এলাকায়। তিনি ও তার দুই ছেলে বাবা ও ভাইয়ের সঙ্গে রাজধানীর মিরপুরের পল্লবী এলাকায় বসবাস করতেন। মনিরুজ্জামান মিরপুর-১ এর দারুস সালাম এলাকায় পিন্সিপাল আবুল কালাম রোডের সরকারি কোয়ার্টার এলাকায় বাস করতেন। সেখান থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) বরিশালের সদস্য। তিনি ঢাকায় শেয়ার রাইডিংয়ের গাড়ি চালাতেন। এই দুই ঘটনার পর ঢাকা-বরিশাল নৌ রুটে লঞ্চে নিরাপত্তা নিয়ে পশ্ন ওঠে। সবশেষ বাসের ড্রাম থেকে লাশ উদ্ধারের ঘটনা বেশ আলোচিত হয়ে উঠে বরিশালে। গত ২০ নভেম্বর রাতে গৌরনদীর ভূরঘাটায় বাসের ড্রামের মরদেহের পরিচয় তাৎক্ষণিকভাব পাওয়া যায়নি। তদন্তে নেমে প্রথমে নারীর পরিচয় বের করে থানা পুলিশ ও পিবিআই। জানা যায় তার নাম সাবিনা বেগম। পরে তাকে হত্যার স্থান বের করে পিবিআই। গত ২৪ ডিসেম্বর ভোরে ধরা পড়েন প্রধান আসামি আব্দুল খালেক হাওলাদার। এঘটনায় পুলিশ সুপার হুমায়ুন কবির জানান, সাবিনার স্বামী সহিদুল ইসলাম কাতারে থাকেন। খালেকের স্বজনদের বিদেশে পাঠানোর কথা বলে সাবিনা তার কাছ থেকে ৫-৬ লাখ টাকা নিয়েছিলেন। তবে কাউকে বিদেশে পাঠাননি সাবিনা, আবার টাকাও ফেরত দেননি। এর জেরে খালেক তাকে হত্যা করেন।

করোনায় যত ভাল উদ্যোগ :
অনেক নেতিবাচক ঘটনার মধ্যেও করোনা মহামারির সময় ব্যক্তিগত, সামষ্টিক ও রাষ্ট্রীয় নানা উদ্যোগ প্রশংসার জন্ম দেয়। করোনাকালে সংক্রমিত রোগীদের চিকিৎসা, মৃত্যুবরণকারীদের দাফন করার মতো কাজ ছিল মানবতার অনন্য দৃষ্টান্ত। করোনা সংক্রমনের পর বরিশালের লকডউনে সাধারন মানুষকে ঘরে রাখছে প্রধামন্ত্রী’র ত্রান সাধারন মানুষের ঘরে পৌছে দিয়েছেন বরিশাল সিটি কপোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। তার নির্দেশে বরিশাল নগরীকে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে দিন রাত কাজ করেছেন বরিশাল সিটি কপোরেশনের পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা। এছাড়াও বরিশাল সিটি কপোরেশরেনর প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে চাল, ডাল, তেল পিয়াজ,আলু সহ বিভিন্ন প্রকার খাদ্য পৌছে দিয়েছেন তিনি। করোনাকালে বরিশাল নগর এবং বিভাগের বিভিন্ন জেলায় জেলা পশাসন, পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তারা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অসহায়, দুস্থ মানুষের জন্য খাদ্য সহায়তা দেন। করোনা সংক্রমণের শুরুতে বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একজনমাত্র মেডিকেল টেকনোলজিস্ট হিসেবে বিভূতিভূষণ হালদার টানা আড়াই মাস করোনার নমুনা সংগ্রহ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন। বরিশাল নগরে করোনায় কাজ হারানো অসহায় মানুষের জন্য খাদ্য সহায়তা, বিনা মূল্যে অ্যাম্বুলেন্স সেবা, মানবতার বাজারে বিনা মূল্যে নিত্যপণ্য সরবরাহ, লকডাউন হওয়া বাড়িগুলোতে রান্না করা খাদ্য, আক্রান্তদের বাড়িতে ওষুধ পৌঁছে দেওয়া, বিনা মূল্যে অক্সিজেন ব্যাংক স্থাপনের মতো অনেক গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ নেয় বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ)। এছাড়াও বরিশাল জেলা যুবদলের সভাপতি পারভেজ আকন বিপ্লব নিজ অর্থায়নে সাধারন ও কর্মহীন মানুষদের মাঝে খাবার বিতরন ও সহয়তা করেছে। সাংবাদিকদের উদ্যোগে লকডাউনে বরিশালের নৌ বন্দরে থানা অহসায় ছিন্নমুল পথ শিশু ও বৃদ্ধদের খাবার বিতরন করেছে। তারা দীর্ঘ তিন মাস এই খাবার বিতরন করে।

%d bloggers like this: