ঢাকা   ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ । ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ । সোমবার । বিকাল ৩:৩৭

বরিশালে জমি-জমা বিরোধে ২ জনকে পিটিয়ে আহত!

 স্টাফ রিপোর্টারঃ  বিমানবন্দর থানাধিন রুহিয়া এলাকায় জমি দখলের জের ধরে মহিলা সহ একই পরিবারের দুইজনকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে মোসলেম ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী। এ সময় বসতঘর ও দোকানপাট ভাঙচুর ও মালামাল লুটপাটের ঘটনা ঘটে। সোমবার রাত সাড়ে দশটায় রুহিয়া এলাকার হাওলাদার বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, ওই গ্রামের বাসিন্দা মৃত সেকান্দার আলী হাওলাদারের ছেলে নুরুল ইসলাম হাওলাদার ও তার স্ত্রী রাশিদা বেগম। আহতদের মধ্যে নুরুল ইসলাম শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আহতের মেয়ে জ্যোতি আক্তার জানান, তার বাবা নুরুল ইসলাম হাওলাদারের ক্রয় কৃত ১৪ শতাংশ জমি থেকে এক শতাংশ জমি তার চাচা অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য রফিকুল ইসলাম প্রতারণা করে নিজের নামে দলিল করে ওই জমিতে দীর্ঘদিন ধরে ভোগ দখল করে আসছে। ১ শতাংশ জমি দখল করেও ক্ষান্ত হননি তিনি।

বাকি জমির উপর রফিক ও তার ভাই শেবাচিম হাসপাতালের নার্সিং কর্মকর্তা মোসলেম উদ্দিন সবুজের আক্রোশ রয়ে যায়। তারা বাকি অংশ দখলের পাঁয়তারা করে আসে । তারই ধারাবাহিকতায় ঘটনার দিন সোমবার রাতে মোসলেমের নেতৃত্বে তার স্ত্রী কাজল রেখা ভাই রফিকুল ইসলাম ও তার স্ত্রী ফাতেমা আক্তার মনি সহ অজ্ঞাত আরো চার-পাঁচ জনে মিলে চোর চোর বলে নুরুল ইসলামের দোকান ও ঘর ভাঙচুর ও মালামাল লুটপাট করে। এসময় নুরুল বাধা প্রদান করলে তারা পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে তাকে লাঠিসোটা দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। তার ডাক চিৎকারে তার স্ত্রী রাশিদা বেগম ঘটনাস্থলে গেলে তাকিও পিটিয়ে আহত করে। পরে স্থানীয়রা আহতদের মধ্যে নুরুল ইসলামকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করে। জ্যোতি আরও জানান, গত ৫ মাস ধরে তাদের সাথে ও তার বাবার সাথে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে।

গত ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯ সালে স্থানীয় কাউন্সিলর ও গণ্যমান্য ব্যক্তিরা সালিশ মীমাংসা করে দেন। সালিশ মীমাংসা নুরুল ইসলাম মেনে নিলেও মেনে নেননি মুসলিম ও রফিকের পরিবার। তাদের মধ্যে ক্ষোভ রেখে নুরুলের পরিবারকে জীবননাশের হুমকি ধামকি সহ বিভিন্ন রকমের ভয়-ভীতি দেখিয়ে আসে। এছাড়াও তারা নুরুলের বিরুদ্ধে উল্টো মামলা দিয়ে নুরুল ও তার পরিবারকে বিভিন্ন রকমের হয়রানি করে আসছে। রফিক ও মোসলেমের বিরুদ্ধে স্থানীয় থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে তিনি জানান। নুরুল ও তার পরিবার মোসলেম ও রফিকের আতঙ্কে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে আহতদের স্বজনরা জানান।

%d bloggers like this: