ঢাকা   ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ । ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ । সোমবার । বিকাল ৩:৩১

বরিশালে ছেলে হত্যার বিচার চেয়ে কাঁদলেন মা

 

পটুয়াখালী শহরের মুসলিমপাড়ার শাহীন ফেরদৌসের মেয়ে মারিয়া বেগমের সাথে প্রেমের ঘটনায় ডেকে নিয়ে যুবক তানভীরকে হত্যা করা হয়। এই হত্যার বিচার চেয়ে সংবাদ সম্মেলনে নিহতের মা কামরুন্নাহার বেগম বলেন, আমার একমাত্র উপার্জনক্ষম সন্তান ছিল তানভীর। আমি এখন খুব অসহায়ভাবে জীবন যাপন করছি। আমি ছেলে হত্যার বিচার চাই। সামবার (৩০ নভেম্বর) সকাল ১১টায় বরিশাল প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন নিহত তানভীরের মা কামরুন্নাহার বেগম।এসময় তিনি বলেন, ‘আমার ছেলে তানভীর রহমান (২১)কে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে শাহীন ফেরদৌস ও তার পরিবার। বর্তমানে আমি মানুষিকভাবে বিপর্যস্ত। আমার স্বামী প্যারালাইজড অবস্থায় ছেলের শোকে বিছানায় কাতরাচ্ছেন। আমি খুব অসহায়ভাবে জীবন যাপন করছি। আমার একমাত্র উপার্জনক্ষম সন্তান ছিল তানভীর। নিহত তানভীরের মা কামরুন্নাহার বেগম অভিযোগ করে বলেন, আমি ছেলে হত্যার বিচার চেয়ে থানায় গেলেও কোন আইনি ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এমনকি আমার অসহায় পরিবারের পাশে কেউ দাঁড়ায়নি। তাই আমি গত ১৭ নভেম্বর পটুয়াখালী বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দন্ডবিধি ৩০২/৩৪ ধারায় মামলা দায়ের করেছি। তিনি আরও বলেন, আমি এক অসহায় মা, আমার ছেলে হত্যার বিচার চাই এবং আসামীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। গত ১১ নভেম্বর পটুয়াখালী শহরের মুসলিমপাড়ার শাহীন ফেরদৌসের বাসায় ফার্মাসিস্ট তানভীর রহমানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। এই হত্যার ঘটনায় কামরুন্নাহার বেগম বাদি হয়ে এবিএম শাহিন ফেরদৌস (৫০), তার স্ত্রী রুমা বেগম (৪০), শাহিন ফেরদৌসের পালিত ছেলে ইমরান (২৩) ও তার মেয়ে মারিয়া বেগম (১৯)কে আসামী করে মামলা করেছেন।

 

 

%d bloggers like this: