ঢাকা   ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ । ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ । বৃহস্পতিবার । বিকাল ৫:০৮

বরিশালে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় ভাইকে কুপিয়ে জখম, বসতঘর ভাংচুর-লুটপাট

অনলাইন ডেস্কঃ  বরিশালের সদর উপজেলার চরমোনাই ইউনিয়নে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় একই পরিবারের মা, মেয়ে ও ছেলেকে বেধরক পিটিয়ে ও রক্তাক্ত জখম করেছে বখাটেরা। ২ নং ওয়ার্ড এর প্রবাসী জাকির হোসেনের ঘরে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে প্রবেশ করেন একদল সন্ত্রাসী বাহিনী। এবং তারা বসতঘর ভাঙচুর করে ও সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এলাকার কতিপয় লোকজন ও ভুক্তভোগীদের থেকে জানা যায় জাকির হোসেন দীর্ঘদিন যাবত বিদেশে থাকেন। তার স্ত্রী ও তার ছেলে রাসেল ও তার মেয়ে মিম ঈছা ঘুরায় তার নিজ বাড়িতে থাকেন। তার মেয়ে মিম বুখাইনগর স্কুলের দশম শ্রেণীর একজন ছাত্রী। সন্ত্রাসী জিহাদ হোসেন বাড়ির সামনে থেকে স্কুলে যাতায়াত করতো অনেকদিন যাবত মীমকে জিহাদ প্রেম নিবেদন সহ বিভিন্ন কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল ও ছবি তুলে ফেসবুকে দেওয়ার হুমকি দেয় যদি তার প্রস্তাবে রাজি না হয়। এই ঘটনা মিম তার বড় ভাই ও মাকে জানায়। মিমের বড় ভাই উক্ত ঘটনার কথা জিহাদের বাবাকে জানালে সে দেখবে বলে জানায়। এতে জিহাদ ক্ষিপ্ত হয় কয়েকদিন পূর্বে মীমের ব্যাপার নিয়ে জিহাদ ও রাসেল এর মধ্যে কথা কাটাকাটি হয় এরপর রাসেলকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয় জিহাদ হোসেন। তারই জের ধরে ১২/ ১১/ ২০২০ ইং তারিখ সন্ধ্যায় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে রাসেলের ঘরে জিহাদ সহ ১০/১২জন সন্ত্রাসী প্রবেশ করে রাসেল কে কুপিয়ে জখম করে ও তার আত্মীয় ইমরান হোসেন কে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দেয় এবং ঘরের সুকেশ আলমারি আসবাবপত্র ভেঙ্গে ফেলে ও নগদ ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকাসহ মিমি গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নিয়ে যায় এবং রাসেলের মাকে কিল-ঘুসি মারে ও তার গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন নিয়ে যায় সন্ত্রাসী বাহিনী এই ঘটনায় রাসেল ও তার আত্মীয় ইমরান হোসেন শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ভর্তি আছেন বলে জানান রাসেলের মা। তিনি আরো বলেন উক্ত ব্যাপারে বরিশাল মডেল কোতোয়ালি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি । ঘটনার ব্যাপারে বরিশাল কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ এর সাথে কথা বললে তিনি জানান তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবেন।

%d bloggers like this: