ঢাকা   ৮ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ । ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ । বৃহস্পতিবার । ভোর ৫:২৩

গলাচিপায় একই পরিবারের ৩ জনকে কুপিয়ে জখম

স্টাফ রিপোর্টারঃ  পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা উপজেলার কল্যান কলস গ্রামে জমি দখলের জের ধরে একই পরিবারের ৩ জনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে ভূমিদস্যু মেহেদী পেদা ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী। রবিবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেল চারটায় কল্যান কলস গ্রামের খান বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, বাশার খান ও তার স্ত্রী রেক্সোনা বেগম ছেলে সজীব খান। বাশার ওই গ্রামের বাসিন্দা আবুল বারেক খানের ছেলে ও কল্যাণ কলস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী। আহতদের মধ্যে বাশার ও রেক্সোনা বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের বেডে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। আহতের মেয়ে জামাতা মিরাজ জানান, গত ২ বছর পূর্বে তার শ্বশুরের জমিতে একই গ্রামের ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসী মেহেদি পেদা ও তার বাহিনী জোরপূর্বক খোলা টয়লেট নির্মাণ করে পরিবেশ দূষণ করে আসছে। ঘটনার দিন রবিবার বিকেলে বাশারের স্ত্রী রেক্সোনা বালু দিয়ে খোলা টয়লেট ভরাট করার চেষ্টা চালায়।

এ সময় মেহেদি পেদা সহ অন্যান্যরা বাধা প্রদান করে। একপর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে মেহেদী পেদার নেতৃত্বে ইউনুস পেদা, নিপা সেলিনা ও হেলেনা সহ অজ্ঞাত আরও ৪/৫ জন মিলে রেক্সোনা কে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে রড ও স্টিলের পাইপ দিয়ে পেটায়। পরে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে রামদা ও চাপাতি সহ দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে।

তার ডাক চিৎকারে বাশার ও তার ছেলে সজীব ঘটনাস্থলে তাকে উদ্ধার করতে গেলে তাদেরকেও পিটিয়ে ও কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক গলাচিপা থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাদের অবস্থার অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

আহতদের মধ্যে বাশারের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান, ওই ইউনিটের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। তিনি আরো জানান, মেহেদি পেদা ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর অত্যাচারে গ্রামবাসী অতিষ্ঠ। তাদের ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। সন্ত্রাসীরা আহতের পরিবারকে জীবন নাশের হুমকি ধামকি সহ বিভিন্ন রকমের ভয়-ভীতি দেখিয়ে আসছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

তাদের বিরুদ্ধে স্থানীয় থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে আহতের স্বজনরা জানান।

%d bloggers like this: