ঢাকা   ২৫শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ । ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ । বুধবার । সন্ধ্যা ৬:২৯

গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে ‘অশনি’

অনলাইন ডেস্কঃ ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’ শক্তি হারিয়ে এই মুহূর্তে অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে ৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছে। এর গতি উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে। সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, ঘূর্ণিঝড়টি আরও দুর্বল হয়ে বৃহস্পতিবার (১২ মে) সকালে গভীর নিম্নচাপে রূপান্তরিত হবে।

এদিকে পশ্চিমবঙ্গে এর সরাসরি কোনো প্রভাব নেই। তবে বুধবার রাতে ও বৃহস্পতিবার দক্ষিণাঞ্চলের সব জেলাতেই হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে। শুধু দুই ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, নদীয়াতে বিক্ষিপ্ত ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। জেলেদের ১৩ তারিখ পর্যন্ত মাছ ধরতে যেতে নিষেধ করা হয়েছে।

বেশি বৃষ্টি হবে উত্তরাঞ্চলের জেলাগুলোতেও। কারণ দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিম দিক থেকে জলীয় বাষ্পপূর্ণ প্রচুর বাতাস প্রবেশ করছে। ফলে অঞ্চলটির সব জেলাতে বুধবার থেকে ১৫ তারিখ পর্যন্ত মাঝারি বৃষ্টি হবে।

এরমধ্যে দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহারে ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টি হবে। দক্ষিণাঞ্চলে দুই দিনে তাপমাত্রা খুব একটা পরিবর্তন হবে না। কিন্তু দুদিন পর থেকে দক্ষিণাঞ্চলের তাপমাত্রা ৩ ডিগ্রি পর্যন্ত বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

অন্যদিকে উত্তরাঞ্চলে আগামী পাঁচ দিন বৃষ্টি হবে তাই তাপমাত্রার খুব একটা পরিবর্তন হবে না।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের আবহাওয়াবিদরা আগেই সতর্ক করেছিলেন যে, শক্তি হারিয়ে দুর্বল হয়ে পড়বে ‘অশনি’। ঘূর্ণিঝড় উপকূলে আসলেও মাটিতে সেটি আছড়ে পড়বে না বলে পূর্বাভাস দিয়েছে ভারতের আবহাওয়া দপ্তর।

তারা বলছে, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে অন্ধ্রপ্রদেশ ও ওড়িশা উপকূলবর্তী অঞ্চলে বৃষ্টি হবে, উত্তাল হবে সমুদ্র। পশ্চিমবঙ্গের কয়েকটি জেলায় ভারি বৃষ্টিপাত ছাড়া তেমন কোনো প্রভাব পড়বে না বলেও জানানো হয়।

%d bloggers like this: