Logo
নোটিশ :
স্বাগতম একুশের আলো .....
বরিশালে জনবল সংকটে শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদানে ধীরগতি

বরিশালে জনবল সংকটে শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদানে ধীরগতি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় যারা এখনো টিকা নেয়নি, সেসব শিক্ষার্থীকে স্কুলে যেতে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। কিন্তু গ্রামগঞ্জে এখনো শিক্ষার্থীদের টিকা নেওয়ার হার আশাব্যঞ্জক নয়। বরিশাল সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্যমতে, জেলায় ১২ থেকে ১৮ বয়সী আড়াই লাখের বেশি শিক্ষার্থীর মধ্যে টিকা নেয়নি প্রায় ৯০ হাজার।

এ অবস্থায় বরিশালে টিকা প্রদানে ধীরগতিতে একদিকে যেমন করোনা ঝুঁকিতে পড়ছে শিক্ষার্থীরা, অপর দিকে পাঠদানও ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।বরিশালের নবনিযুক্ত সিভিল সার্জন ডা. মারিয়া হাসান বলেন, জেলায় ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সী ২ লাখ ৫০ হাজার ৫০৩ জন শিক্ষার্থীকে টিকা দিতে হবে। এর মধ্যে নগরীসহ সদর উপজেলায় রয়েছে ৬০ হাজার ১০৮ জন। ইতিমধ্যে বরিশাল জেলায় ওই বয়সের শিক্ষার্থীদের মধ্যে টিকা দেওয়া হয়েছে ১ লাখ ৬০ হাজার ৭৪২ জনকে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী তাঁদের ১৫ জানুয়ারির মধ্যে টিকাদান কার্যক্রম শেষ করতে হবে।

তবে জনবলসংকটে এখনো শেষ হয়নি। নতুন বিধিনিষেধ অনুযায়ী গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে টিকা কার্ড নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যেতে হবে ছাত্র-ছাত্রীদের। দুপুর ১২টায় নগরীর হালিমা খাতুন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সামনে একাধিক অভিভাবক জানান, টিকা কার্ড নিয়ে ক্লাসে আসার বিষয়ে যে সিদ্ধান্ত হয়েছে, তা বাস্তবায়নে শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদান আরও আগে শুরু করা উচিত ছিল।এদিকে হিজলা, মেহেন্দীগঞ্জ, বাকেরগঞ্জ, বাবুগঞ্জে টিকা প্রদান কার্যক্রম ধীরগতিতে চলছে। মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তপন কুমার দাস বলেন, পাঁচ দিন ধরে টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে।

২২ হাজার শিক্ষার্থীর মধ্যে ১৬ হাজারকে টিকা দেওয়া শেষ করেছেন।সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধানে বরিশাল স্টেডিয়ামে চলছে টিকাদান কর্মসূচি। বুধবারের তথ্যমতে, এ পর্যন্ত নগরীসহ সদর উপজেলায় ৩৫ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী টিকা নিয়েছে।টিকাদান কার্যক্রম তদারকিতে থাকা বরিশাল নগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ভিপি আনোয়ার হোসাইন বলেন, তাঁরা চিন্তা করছেন বুথের সংখ্যা বাড়ানোর।

সরকারি পরিপত্র বাস্তবায়নে শিক্ষার্থীরা যাতে টিকা দিয়ে স্কুলে যেতে পারে, সে চেষ্টা চলছে।বরিশাল প্রধান শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বলেন, শিক্ষার্থীদের টিকাদান কর্মসূচি এগিয়ে যাচ্ছে। তাঁর স্কুলেই ৭০ ভাগ শিক্ষার্থীর টিকা নেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার থেকে সরকারি নির্দেশনা মেনে শিক্ষার্থীদের স্কুলে আসতে হবে। তারা কাল থেকেই বলবেন টিকা কার্ড নিয়ে স্কুলে আসতে।বরিশাল শিক্ষক কর্মচারী ঐক্য ফ্রন্টের বিভাগীয় আহ্বায়ক অধ্যাপক মহসিন উল ইসলাম হাবুল বলেন, এখনো ১ লাখ ছাত্রছাত্রী টিকা নেয়নি। তাহলে এই ছাত্রছাত্রীদের পাঠদান কীভাবে চলবে—এটাও ভাবা দরকার।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *