Logo
নোটিশ :
স্বাগতম একুশের আলো .....
সরকারি বিধিনিষেধ ভাঙলে জেল-জরিমানা

সরকারি বিধিনিষেধ ভাঙলে জেল-জরিমানা

অনলাইন ডেস্কঃ করোনাভাইরাসের নতুন ঢেউ প্রতিরোধে সরকার যে ১১ দফা বিধিনিষেধ দিয়েছে, তা না মানলে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জেল-জরিমানা করা হবে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) রাজধানীর মহাখালী বাংলাদেশ কলেজ অফ ফিজিশিয়ানস অ্যান্ড সার্জনস প্রাঙ্গণে স্বাস্থ্য অধিদফতরের কম্পিউটারসামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, ‘অমিক্রনের প্রভাবে বিভিন্ন দেশে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে, বাংলাদেশেও এই হার বেড়েছে। যত সংক্রমণ বাড়বে, হাসপাতালে রোগীর মৃত্যুর সংখ্যাও বাড়বে। এটি নিয়ন্ত্রণে সরকার ১১ দফার বিধিনিষেধ দিয়েছে। বিধিনিষেধ না মানলে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জেল-জরিমানা করা হবে।’

করোনার সংক্রমণ রোধে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘করোনার সংক্রমণ রোধে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে, মাস্ক পরতে হবে। তা না হলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

১১ দফা নির্দেশনায় সভা-সমাবেশ সীমিতের কথা বলা হলেও বাণিজ্য মেলা বন্ধ করা হচ্ছে না কেন, এমন প্রশ্নে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা শুধু বাণিজ্য মেলার বিষয়ে পরামর্শ দিতে পারি। বাস্তবায়নের বিষয় তাদের।’ বৃহস্পতিবার থেকে ধর্মীয় ও রাজনৈতিক সভা-সমাবেশ সীমিত করা হবে বলে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যারা দোকানে যাবেন, ব্যবসা-বাণিজ্য যাবেন, চাকরিতে যাবেন সবাইকে মাস্ক পরতে হবে। মাস্ক না পরলে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জেল-জরিমানা করা হবে।

‘কাল থেকে দোকানপাট রাত ৮টার মধ্যেই বন্ধ করতে হবে। লঞ্চ-ট্রেন গণপরিবহনে যা কাজ করলে অবশ্যই মাস্ক পরতে হবে, মাস্ক পরবেন। সকল ধরনের পর্যটক কেন্দ্রে যেতে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। কোন এলাকায় সভা সমাবেশের নামে জট পাকানো যাবে না। কর্মক্ষেত্রে যাওয়ার জন্য যাদের ঘরের বাইরে যেতে হবে তাদেরকে অবশ্যই মাস্ক পরতে হবে।’

বাংলাদেশ করোনা সংক্রমণ ধারাবাহিকভাবে বাড়ছে জানিয়ে জাহিদ মালেক বলেন, ‘গতকাল করোনা হার ৯ শতাংশ থাকলেও তা বেড়ে ১১ শতাংশ পেরিয়েছে। এমন অবস্থা চলতে থাকলে কি পরিস্থিতি হবে তা আপনারা বুঝতে পারছেন।’

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *