Logo
নোটিশ :
স্বাগতম একুশের আলো .....
বরিশালে মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ’র নেতৃত্বে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি মিছিল

বরিশালে মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ’র নেতৃত্বে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি মিছিল

মোঃ শহিদুল ইসলাম: আগে থেকে নির্ধারিত ছিলো বিকাল ৪ টার কর্মসূচি, যেমন কথা ঠিক তেমন কাজ।সময় অনুযায়ী একে একে নেতা কর্মীরা জড়ো হতে থাকেন দলীয় কার্যালয়ের সামনে।এর পর যার জন্য সবার অপেক্ষা প্রিয় নেতা কখন আসবেন প্রোগ্রামে,নাকি বৃষ্টির কারনে তিনি কি আসবেন না? এমন প্রশ্ন ঘুরপাক খেতে থাকে নেতাকর্মীদের মনে।

এমন সময় ঠিকই রেনকোট, হাত ঘড়ি, পরনে জিন্স প্যান্ট পায়ে কেরর্স এমন বেশে তিনি কর্মসূচী স্থলে হাজির হলেন, তখন মুশলধারে বৃষ্টি হচ্ছিল। বরিশালে চলছে ৩ নম্বর সিগন্যাল এর মধ্যেও কোন ঝড়বৃষ্টি বাধা হতে পারেনি আজকের কর্মসূচি। ছাতা তো দুরের কথা এমনকি গায়ের রেনকোট খুলে শুধু গেঞ্জি পরে বৃষ্টিতে ভিজে প্রোগ্রাম শেষ করেছেন দলীয় নেতা কর্মীদের সাথে। তিনি আর কেউ নন,বরিশাল আওয়ামী লীগের আস্থার প্রতিক সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ।

আজকে এমন কর্মসূচির খবরে দলীয় নেতাকর্মীদের প্রশংসায় ভাসছেন তিনি। দেশের বিভিন্ন স্থানে চলমান সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সম্প্রতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

তুমুল ঝড়বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে আজ ১৯ অক্টোবর মঙ্গলবার বিকাল ৪ টায় বরিশাল জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের আয়োজন এ কর্মসূচি পালন করা হয়।আর এতে নেতৃত্ব দেন বিসিসি মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ ও মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট এ,কে,এম জাহাঙ্গীর।

দলীয় কার্যালয় থেকে শোভাযাত্রা নগরীর ব্যস্ততম বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন শেষে সোহেল চত্বর এসে শেষ হয়।

সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি মিছিলে আরও অংশ গ্রহন করেন প্যানেল মেয়র এ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন, নগরীর বিভিন্ন মসজিদের ইমাম, জেলা ও মহানগর পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি/সম্পাদবৃন্দসহ বিভিন্ন ধর্মের অনুসারিগন।মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মী ছাড়াও ৩০টি ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে আসা নেতাকর্মী জানান, বৈরী আবহাওয়াকে উপেক্ষা করে প্রোগ্রাম করা এটা ই প্রথম না। তবে করোনা কালিন সময় এটাই প্রথম। মেয়র মহোদয় যে কর্মসূচি হাতে নেন তা তিনি পালন করেন। এটা হলো তার সব চেয়ে বড় গুন।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *